Monday, January 27

অধারাবাহিক সৌম্য, সাব্বিরে চিন্তিত বিসিবি



নিদাহাস ট্রফিতে লিটন দাস একটি মাত্র ম্যাচে দারুণ ব্যাটিং করেছেন। পুরো টুর্নামেন্টেই ভালো করতে পারেননি সৌম্য সরকার। ধারাবাহিকতা ছিল না সাব্বির রহমানের ব্যাটেও। ব্যাট হাতে টাইগার জুনিয়ররা ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করতে না পারায় দলের হাল ধরতে হচ্ছে সিনিয়রদেরই।

শুধু ব্যাটসম্যানরাই কেন? তাসকিন, আবু হায়দার রনির মতো তরুণ বোলাররাও ঠিক যেন ধারাবাহিকভাবে  জ্বলে উঠতে পারছেন না। দু’একটি ম্যাচে যাও পারছেন পরের ম্যাচেই দপ করে নিভে যাচ্ছেন। ঠিক এই বিষয়টিই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) সংবাদ মাধ্যমকে এসব কথা জানান বিসিবির গেমস ডেভেলপমেন্ট প্রধান ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন।

সুজন বলেন, ‘এটা নিয়ে আমরা খুবই চিন্তিত। কোর্টনি ওয়ালশ হয়তো দুই-চারদিনের মধ্যে ফিরবে ঢাকায়, তখন হয়তো বসে প্ল্যান করা হবে। যেহেতু প্লেয়াররা এখন প্রিমিয়ার লিগ এবং পরে বিসিএল খেলবে, ওদেরকে ম্যাচ খেলতে দেয়া উচিত। যত খেলবে ততো শিখবে। আমরা খুবই উদ্বিগ্ন যে, আমাদের ধারাবাহিকতা একদম হচ্ছে না ইয়াং প্লেয়ারদের।’

‘লাস্ট কয়েকটা বছর ধরে রিয়াদ, মুশফিক, তামিম তারা যেভাবে পারফর্ম করছে জুনিয়র প্লেয়াররা সেভাবে করতে পারছে না। যদি লিটন, সাব্বির, সৌম্যর মাঝে সেই ধারাবাহিকতটা থাকতো তাহলে হয়ত এক-দুইটা প্লেয়ারকে হয়ত পরের সিরিজে বিশ্রাম দিতে পারতাম। সামনের দুই বছর টাইট সিডিউল বাংলাদেশের। এটা কনসার্ন (উদ্বেগ)।’

সুজন এসময় কথা বলেন প্রধান কোচ নিয়োগ প্রসঙ্গেও। নিদাহাস ট্রফি চলাকালীন কলম্বোয় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই নিয়োগ দেয়া হচ্ছে মাশরাফি, সাকিবদের প্রধান কোচ। কিন্তু এতদ সংক্রান্ত বিষয়ে আজও কোন সুখবর দিতে পারেনি বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। অনুমিতভাবে পারলেন না সুজনও।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *