Saturday, January 18

ওসমানীনগরের মনজুরের অবস্থা সংকটাপন্ন



ওসমানীনগর প্রতিনিধি::ওসমানীনগরে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত কলেজ ছাত্র মনজুর আহমদ চৌধুরীর অবস্থা সংকটাপন্ন। রোববার ভোরে মনজুরের দেহে অস্ত্রপোচার করা হলেও রক্তক্ষরণ বন্ধ হচ্ছে না। চিকিৎসকরা তাকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। মনজুরের দেহ থেকে এখনও রক্তক্ষরণ হচ্ছে। চিকিৎসকের বরাত দিয়ে আহত মনজুরের ভাই জাহাঙ্গির চৌধুরী জানিয়েছেন মনজুর ছুরিকাঘাত হবার পর তার দেহের রক্ত অনেকটা পেটের নাড়িভুড়িসহ শরীরের ভেতর প্রবেশ করায় মনজুরে দেহে বড় ধরণের অপারেশনের মাধ্যমে পেটের নাড়ি ভুড়ি বের করে পরিস্কার করা হয়েছে। বর্তমানে মনজুর ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। চিকিৎসকের পরামর্শে প্রয়োজনে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হতে পারে।

এদিকে রোববার বিকেলে আহত মনজুরের ভাই জাহাঙ্গীর চৌধুরী বাদী হয়ে পুলিশের হাতে আটক মির্জা সহিদপুর গ্রামের তশিল মিয়ার ছেলে ফয়ছল আহমদকে(২৮) একমাত্র আসামী করে ওসমানীনগর থানায়(মামলা নং-১২) দায়ের করেন। রোববার বিকেলে পুলিশ আটকৃত ফয়ছলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
ওসমানীনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সহিদ উল্যা মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলার একমাত্র আসামী ফয়ছলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার মধ্য রাতে উপজেলার উমরপুর ইউপির মির্জা সহিদপুর গ্রামের মনজুরের সাথে তাদের বাড়ির সামনে রাস্তায় একই গ্রামের পার্শ্ববতী বাড়ির তশিল মিয়ার ছেলে ফয়ছলের সাথে রসিকতার এক পর্যায়ে দুজনের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ফয়ছল ক্ষোব্দ হয়ে তার সাথে থাকা ছুরি দিয়ে মনজুরের বুকে ও পেটে উপর্যপোরী ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় মনজুরকে উদ্ধার করে রাতেই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর রাতেই পুলিশ মনজুরের উপর হামলাকারী ফয়ছলকে আটক করে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *