Monday, January 20

কোটা সংস্কার: যৌক্তিক সমাধানের শেষ পর্যায়ে সরকার



সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আবারও আশ্বস্ত করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছে: এখানে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, প্রতিবন্ধী, নারী, জেলা কোটা রয়েছে। এটাকে যৌক্তিক পর্যায়ে নিয়ে সমাধানে আসা দুরহ ব্যাপার। তবে, আমি আশ্বস্ত করছি, সরকার এ সমস্যা সমাধানের শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

সোমবার বিকালে ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মহিলা পরিষদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন: আজও একই কথা পুর্নব্যক্ত করছি। বাংলাদেশে এতো উন্নয়ন অর্জন সব কিছুর পেছনে রয়েছেন আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা। সারা বিশ্বের মানুষ তার উন্নয়ন ও অর্জনকে স্বীকৃতি দিচ্ছে।

বিশ্বের সেরা দুই প্রধানমন্ত্রীর একজন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। তিনি সংসদে দাড়িয়ে কথা দিয়েছেন। সেখানে প্রজ্ঞাপনের জন্য হুমকি কেন! তাদের বুঝতে হবে সব কিছুর মধ্যে সমন্বয় করা কতোটা দুরহ কাজ।

কোটার যৌক্তিক সমাধানের জন্য ক্যাবিনেট সচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি এরই মধ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছে বলে জানান কাদের।

তিনি বলেন: আমাদের তরুণদের কাছ থেকে এ ধরনের ধৈর্যচ্যুতি আমরা প্রত্যাশা করি না। তবে এখানে যেন কোনো অপরাজনীতি প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে আন্দোলনকারীদেরই খেয়াল রাখতে হবে।

রাজধানীর শাহবাগে আজকের অবরোধের কথা তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন: রাজধানী জুড়ে মানুষ দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে। মুমূর্ষু মানুষ হাসপাতালে পৌছাতে পারছে না। দুর্ভোগ সৃষ্টি করার কোনো অধিকার তাদের নেই। ধৈর্য হারা না হয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থা রাখার পরামর্শ দেন তিনি।

খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ষড়যন্ত্র করছে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে যে অভিযোগ করা হচ্ছে তার জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন: শেষ পর্যন্ত এ দলটি বলেই যাবে। রেজাল্ট আগ মুহূর্ত পর্যন্ত নালিশের ভাঙা রেকর্ড বাজাবে এটা তাদের স্বভাবের দোষ। কুমিল্লায় জিতেও বলেছিলো, নির্বাচন সুষ্ঠু হলে আরও বেশি ভোটে জিততো তারা!

আসলে বিএনপি কখনও হারতে চায় না। গণতন্ত্র রাজনীতিতে জোয়ার ভাটা থাকবে। এটা মেনে নিয়ে রাজনীতি করতে হবে। কুমিল্লা-রংপুরে হেরেছি মেনে নিয়েছি এখানে আমাদের ভাটা।

ছাত্রলীগের নতুন কমিটি নিয়ে চিন্তিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে কমিটি প্রকাশ করা হবে। অনুপ্রবেশকারী আছে কিনা আমরা খতিয়ে দেখছি। পরে তো আপনারাই বলবেন ‘অনুপ্রবেশকারী’। ঠিক সময় মতো কমিটি প্রকাশ করা হবে। এটা নিয়ে চিন্তিত না হলেও চলবে।

মতবিনিময় সভায় নারী নেতৃত্বের বিকাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করে মহিলা পরিষদ থেকে আগতরা।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *