Friday, January 24

‘চতুর্মুখী’ আক্রমণ নিয়ে ব্রাজিলের প্রস্তুতি



অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে আজ রোববার বিশ্বকাপ শুরুর আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়। এই ম্যাচে নেইমার, কুতিনহো, জেসুস, উইলিয়ানদের নিয়ে ‘চর্তুমুখী’ আক্রমণভাগ খেলাবেন ব্রাজিল কোচ তিতে।

ব্রাজিলিয়ান আক্রমণভাগকে এই ম্যাচে খুব ভালোভাবে বাজিয়ে দেখতে চান কোচ তিতে। এটি অস্ট্রিয়ার জন্য দুঃসংবাদও বটে। নেইমার, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, কুতিনহো ও উইলিয়ানকে একসঙ্গে মাঠে নামিয়ে ‘চতুষ্টয়’ আক্রমণভাগ খেলাবেন ব্রাজিল কোচ।

সে ক্ষেত্রে, বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ দলগুলোও নড়েচড়ে বসতে পারে। কারণ, তিতের এই ‘চতুষ্টয়’ আক্রমণভাগ খেলানোর সিদ্ধান্ত তো আসলে বিশ্বকাপের ‘ড্রেস রিহার্সেল’।

গত ফেব্রুয়ারিতে পায়ের হাড় ভেঙে নেওয়ার পর গত সপ্তাহে প্রথমবারের মতো বদলি হয়ে মাঠে নেমেছিলেন নেইমার। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সেই প্রীতি ম্যাচে দারুণ একটি গোলও করেছিলেন ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড। অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে তাঁকে ম্যাচের শুরু থেকেই খেলাবেন তিতে। নেইমারকে প্রথম একাদশে জায়গা দিতে ফার্নান্দিনহোকে বেঞ্চে বসতে হবে। মাঝমাঠের দায়িত্ব থাকবে কুতিনহো ও পাউলিনহোর ওপর। আক্রমণভাগে উইলিয়ান ও নেইমারের সামনে থাকবেন জেসুস।

বিশ্বকাপে ব্রাজিলের এই ‘চতুষ্টয়’ আক্রমণভাগ খেলানো উচিত বলে মনে করেন অনেকেই। তবে এই চার খেলোয়াড় একসঙ্গে খুব একটা খেলার সুযোগ পাননি। এ পর্যন্ত তিন ম্যাচে সব মিলিয়ে প্রায় ঘণ্টাখানেক একসঙ্গে খেলেছেন নেইমার, কুতিনহো, জেসুস ও উইলিয়ান।

অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে শিষ্যদের পারফরম্যান্স দেখেই বিশ্বকাপের একাদশ ঠিক করবেন তিতে। ব্রাজিল কোচের ভাষ্য, ‘ঠিক জানি না এই দলটাই বিশ্বকাপের শুরুতে খেলাবো কি না। এই ম্যাচ (অস্ট্রিয়া) এবং পারফরম্যান্স দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

২৫ ফেব্রুয়ারিতে সেই মারাত্মক চোটের পর আজ প্রথমবারের মতো প্রথম একাদশের হয়ে কোনো ম্যাচ খেলবেন নেইমার। পিএসজি তারকার ফিটনেস নিয়ে বেশ ভাবনার মধ্যেই রয়েছেন তিতে। নেইমারকে পূর্ণ মাত্রায় অনুশীলনের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এ নিয়ে তিতের ব্যাখ্যা, ‘তাঁকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা চালিয়ে যেতে বলেছি। কারণ চোট থেকে ছন্দে ফেরার সেরা উপায় হলো কঠোর অনুশীলন।’

তিতের অধীনে বিশ্বকাপে ‘হেক্সা’ (ষষ্ঠ) জয়ের স্বপ্ন দেখছে ব্রাজিল। ২০১৬ সালে তিতে কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পর ব্রাজিল ২০ ম্যাচে মাত্র একটিতে হেরেছে। ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে ব্রাজিল। ‘ই’ গ্রুপে তাঁদের বাকি দুই প্রতিপক্ষ কোস্টারিকা ও সার্বিয়া।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *