Monday, January 20

মরদেহ দেখতে গিয়ে কাঁদলেন বিমানমন্ত্রী



নেপালে প্লেন দুর্ঘটনায় নিহত নজরুল ইসলাম, পিয়াস রায় ও মোহাম্মদ আলিফুজ্জামানের মরদেহ দেখতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল।

বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৮ নম্বর গেইটে এ আবেগঘন ঘটনা ঘটে।

এ সময় বিমানমন্ত্রী শাহজাহান কামালকে রুমাল দিয়ে বার বার চোখে মুছতে দেখা যায়।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ৮ নম্বর গেইট দিয়ে প্রথমে নজরুল ইসলামের মরদেবাহী গাড়িটি বের হয়। এ সময় গাড়ির সামনের দুই সিটে নজরুল ইসলামের দুই মেয়ে বসা ছিলেন। পরে পেছন দিক দিয়ে মন্ত্রী মরদেহবাহী গাড়ির গেইট খুলে নজরুল ইসলামের কফিন দেখতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন।

পরে একে একে আলিফুজ্জামান ও পিয়াস রায়ের মরদেহ দেখতে গিয়েও মন্ত্রী এভাবে কেঁদে ফেলেন। এ সময় বিমানমন্ত্রীকে বার বার তার হাতে থাকা রুমাল দিয়ে চোখ মুছতে দেখা যায়।

পরে মন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, আমরা ইতোপূর্বে ২৩ জনের মরদেহ গ্রহণ করেছি। আজকে আবার তিন জনের মরদেহ গ্রহণ করলাম। তাদের জন্য দোয়া করবেন, যেন বেহেশত নসিব হয় এবং তাদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

তদন্তের ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, ঘটনার পরেই আমি নিজে সেখানে গিয়ে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছিলাম, বলেছিলাম ‘আপনাদের এয়ারপোর্টে দুর্ঘটনা ঘটেছে, এর দায় আপনাদের নিতে হবে’।

তিনি বলেন, দেখেন দুর্ঘটনার পরে আমরা ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার করেছি। তদন্ত করছি। আমাদের সিভিল এভিয়েশনও তদন্ত করছে। তদন্ত শেষে বুঝা যাবে কোথায় সমস্যা ছিল।

নিহতদের ক্ষতিপূরণের বিষয়ে তিনি বলেন, ইনশাল্লাহ্ তারা ক্ষতিপূরণ পাবেন। তবে কতদিন লাগবে বলতে পারছি না। কারণ এখানে আইনগত ব্যাপার আছে, তারা টাকা পাবে।

যে প্রাণগুলো গেছে, এগুলোতো আর টাকা দিয়ে পাওয়া যাবে না- মন্ত্রী আপেক্ষ করে বলেন। এ সময় মন্ত্রী আবারও ঢুকরে কেঁদে উঠেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *