Sunday, February 2

মাহাথিরের শপথ গ্রহণে জটিলতা



মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে ১২১ আসনে জয় নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েও নতুন সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে বাধা পাচ্ছেন ড. মাহাথির মোহাম্মদ।

এর আগে বৃহস্পতিবারই তিনি শপথ নিতে পারেন বলে জানানো হয়েছিল। এমনকি স্থানীয় সময় দুপুরের দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে মাহাথির নিজেই বলেছিলেন, তার নেতৃত্বাধীন জোট চাইছে তিনি বৃহস্পতিবারই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বিকেল ৫টার মধ্যেই হতে পারে বলেও জানান তিনি।

ফ্রি মালয়েশিয়া টুডে জানিয়েছে, মাহাথিরের রাজনৈতিক দলসহ চার রাজনৈতিক দলের জোট পাকাতান হারাপান (পিএইচ)-এর প্রত্যেকটি দলই আলাদাভাবে বৃহস্পতিবার সকালে মালয়েশিয়ার রাজা ইয়াং দি-পেরতুয়ান আগং-এর কাছে চিঠি পাঠিয়ে আজকেই মাহাথির মোহাম্মদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করার অনুরোধ করে।

পাকাতান হারাপানের এই ঘোষণার পর মাহাথির মোহাম্মদ বৃহস্পতিবারই শপথ নিচ্ছেন – এমন একটি খবর সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

কিন্তু রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়, পাকাতান হারাপান জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতাসীন বারিসান ন্যাসিওনাল জোটকে বুধবারের নির্বাচনে হারালেও বৃহস্পতিবার নতুন প্রধানমন্ত্রী শপথ নিতে পারবেন না।

তবে এর স্পষ্ট কোনো ব্যাখ্যা দেয়া হয়নি প্রাসাদের পক্ষ থেকে।

মালয়েশিয়া-মাহাথির মোহাম্মদ-শপথ গ্রহণ

প্রথমে বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও এরপর মাহাথির মোহাম্মদ নিজেই বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে পরিষ্কার করেন। জানান, সংবিধান বুঝতে জটিলতার কারণেই শপথ গ্রহণের বিষয়টি পেছানো হয়েছে।

তিনি বলেন, শপথ নেয়ার ক্ষেত্রে প্রথম জটিলতাটি দেখা দিয়েছে বিজয়ী জোট নিয়ে। পাকাতান হারাপানের দল চারটি আনুষ্ঠানিকভাবে জোট গঠন করে নির্বাচন করেনি। করেছে পিপল’স জাস্টিস পার্টি (পিকেআর)-এর প্রতীক নিয়ে।

‘আর এ কারণে চারটি দলের কোনোটিরই এককভাবে সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই,’ বলেন মাহাথির।

‘তবে আমরা আইনের নির্দেশ মেনে চলব। আর সংবিধান অনুসারে, প্রধানমন্ত্রীকে সরকার গঠন করতে হলে অবশ্যই দেওয়ান রাকইয়াত (মালয়েশিয়ান পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ)-এর সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপির সমর্থন থাকতে হবে।’

সংবিধানে শুধু এমপিদের সমর্থনের কথা বলা আছে, দল হিসেবে সমর্থন পাবার কথা উল্লেখ নেই বলে জানান পাকাতান হারাপানের এই চেয়ারম্যান।

মালয়েশিয়া-মাহাথির মোহাম্মদ-শপথ গ্রহণ

সেদিক থেকে তার ১৩৫ জন এমপির সমর্থন রয়েছে উল্লেখ করে মাহাথির বলেন, সাংবিধানিকভাবে সরকার গঠনের যোগ্যতার রয়েছে তার। এখন শুধু রাজা আগংয়ের পক্ষ থেকে শপথ করিয়ে নতুন প্রধানমন্ত্রীকে নিয়োগ দেয়া বাকি।

এছাড়া গত রাতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদ শেষ হয়েছে জানিয়ে মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, বর্তমানে মালয়েশিয়ায় কোনো সরকার নেই। তাই তাৎক্ষণিকভাবে নতুন সরকার গঠন করা প্রয়োজন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *