Saturday, January 18

সমঝোতায় আসছেন আরিফ-জুবায়ের!



নিজস্ব প্রতিবেদক::
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী হতে মাঠে তৎপর রয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী ও জামায়াতে ইসলামির সিলেট মহানগর আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। ইতোমধ্যে জুবায়ের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আর বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বিএনপির মনোনয়ন পেতে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।

প্রার্থিতা এখনো চূড়ান্ত না হলেও দুই প্রার্থীই ইতোমধ্যে প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। নগরীতে ব্যানার, বিলবোর্ড, তোরণ নির্মাণ করে নিজেদের প্রার্থিতা জানান দেওয়ার পাশাপাশি অনানুষ্ঠানিক গণসংযোগও শুরু করেছেন।

২০ দলীয় জোটের অন্তর্ভুক্ত বিএনপি ও জামায়াতের দুই নেতার আলাদাভাবে প্রার্থিতা ঘোষণা ও প্রচারণার কারণে সিলেট সিটি নির্বাচনে জোটের বিভক্তিরও আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এরআগে সিলেটে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও আলাদা আলাদাভাবে অংশ নেয় বিএনপি ও জামায়াত।

গত বছরও আরিফুল হকের সাথে এহসানুল মাহবুব জুবায়ের সিলেট সিটি নির্বাচনে জোটের প্রার্থিতা দাবি করেছিলেন। পরে সমঝোতার ভিত্তিতে আরিফকে ছাড় দেন জুবায়ের।

এবারও সমঝোতার ভিত্তিকে একক প্রার্থী দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা। বুধবার রাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ২০ দলীয় জোটের সভায় সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জোটের পক্ষ থেকে একক প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জোটের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে নিজেদের মধ্যে আরও আলোচনার জন্য আগামী ২৭ জুন আবারও জোটের বৈঠক হবে বলে জানা গেছে।

এ বৈঠকের ব্যাপারে মহানগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, একক প্রার্থী দেওয়া ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নেতারা আলোচনা করেছেন। তবে কে প্রার্থী হবেন তা সিদ্ধান্ত হয়নি।

জুবায়ের বলেন, দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা আমাকে প্রার্থী হওয়ার চাপ দিচ্ছেন। তাদের মতামতে আমি প্রার্থী হয়েছি। মঙ্গলবার ২০ দলীয় জোটের সিলেটের নেতাদের সাথে আমি বসেছিলাম। সে বৈঠকে জোটের পক্ষ থেকে আমাকে সমর্থন দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছি। আশা করছি জোট থেকে আমাকে প্রার্থী করা হবে।

জোট থেকে প্রার্থী দেওয়া না হলে নির্বাচন করবেন কি না এ ব্যাপারে জুবায়ের বলেন, দলের নেতাকর্মীরা চাচ্ছেন আমি নির্বাচন করি। এ বিষয়টি আমি কেন্দ্রীয় নেতাদেরও অবহিত করেছি।

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থিতা বিষয়ে বুধবার নয়াপল্টনে জোটের বৈঠকে উপস্থিত দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আবদুল হালিম বলেন, জামায়াত সব সময় গণতন্ত্র ও জোটের স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে থাকে। এবারও তার ব্যত্যয় ঘটবে না।

সিসিকের মেয়র প্রার্থী হতে বুধবার বিএনপির মনোনয়ন কিনেছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম।

আগামী ৩০ জুলাই এই সিটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *